৫০% ছাড়
ISBN: 978-984-91176-0-5

জীবন ও কর্ম: আয়েশা রাযিয়াল্লাহু আনহা

৳  500.00 ৳  300.00

মূল লেখক ǀ রাশীদ হাইলামায
ইংরেজি অনুবাদ ǀ হুলইয়া চোশার ‎
বাংলা অনুবাদ ǀ মুহাম্মাদ আদম আলী
দ্বিতীয় সংস্করণ ও তৃতীয় প্রকাশ : সেপ্টেম্বর ২০১৯‎
প্রথম সংস্করণ, দ্বিতীয় প্রকাশ : রজব ১৪৩৮ / এপ্রিল ২০১৭‎
প্রথম প্রকাশ : নভেম্বর ২০১৫
পৃষ্ঠা সংখ্যা: ৩১২; ISBN : 978-984-91176-0-5
মূল্য : ৳ ২০০.০০ ৳ ৪০০ (পেপারব্যাক); ৳২৫০  ৳ ৫০০.০০ (হার্ডকভার)‎

Compare

Description

এ গ্রন্থে ইসলামের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এক ব্যক্তিত্বের পরিচয় তুলে ধরা হয়েছে। বিরুদ্ধবাদীদের মিথ্যা অপবাদ এবং ‎অহেতুক সমালোচনার প্রেক্ষিতে রাসূল সা.-এর অন্যান্য স্ত্রীদের তুলনায় উম্মুল মুমিনীন আয়েশা রা.-কে আরও বেশি ‎সঠিকভাবে জানা প্রয়োজন। রাসূল সা. এবং তার বিশিষ্ট সাহাবীদের সম্পর্কে বিশেষজ্ঞ ড. রাশীদ হাইলামায বিশ্বস্ত তথ্য-‎উপাত্ত থেকে আয়েশা রা.-এর জীবনের উপর বিভিন্ন দৃষ্টিকোণ থেকে আলোকপাত করেছেন। তিনি ইসলামের শিক্ষা ‎বাস্তবায়নে আয়েশা রা.-এর বিশাল ভূমিকা, বিশেষ করে মহিলাদের ব্যক্তিগত এবং দাম্পত্যজীবনে ইসলামী শিক্ষা প্রচার-‎প্রসারে এবং রাসূলের বাণীকে সঠিকভাবে সংরক্ষণে যে নিবেদিত ভূমিকা রেখেছেন, তা পরিষ্কারভাবে বর্ণনা করেছেন। ‎এখানে কুরআনের তাফসীর, হাদীসশাস্ত্র, ফিকহ ইত্যাদি ইসলামের সকল শাখায় তার পারদর্শিতা বিভিন্ন ঘটনা ও ‎উদাহরণের মাধ্যমে যেমন বর্ণনা করা হয়েছে, তেমনি বহুল আলোচিত বিষয়সমূহ যেমন, তার বিয়ের বয়স এবং আলী রা.-‎এর ব্যাপারে তার অবস্থান, আলাদা বিষয়বস্তু হিসেবে আলোচনা করা হয়েছে।

{jibon o kormo Ayesha Raziallahu Anha, jibon o kormo Ayesha Rajiallahu Anha,zibon, gibon } ‎

2 reviews for জীবন ও কর্ম: আয়েশা রাযিয়াল্লাহু আনহা

  1. admin

    [রিভিউ লেখক : MarJaana IsRaat ‎]

    বইয়ের নাম: জীবন ও কর্ম : আয়েশা রাযি. (রাসূল সা. এর স্ত্রী, সঙ্গিনী, ফকীহ)

    লেখক: রশীদ হাইলামায

    অনুবাদক: মুহাম্মাদ আদম আলী

    প্রকাশনী: মাকতাবাতুল ফুরকান

    মূল্য : ২৬০ টাকা

    লেখক পরিচিতি: ড. রশীদ হাইলামায তুরস্কের একজন ইসলামী গবেষক ও সীরাত লেখক। তার লেখা বই বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত হয়েছে। উলামায়ে কেরামসহ সব শ্রেণির পাঠকের কাছে তার বই ব্যাপকভাবে গ্রহণযোগ্যতা লাভ করেছে। বিশেষ করে ‘জীবন ও কর্ম: আয়েশা রাযি.’ বইটির পাঠকগণ লেখকের কুরআন ও হাদীসের উপর বিশেষ প্রজ্ঞা, শৈল্পিক অভিব্যক্তি এবং সর্বোপরি ইসলামের প্রতি তার গভীর ভালবাসা উপলব্ধি করতে সক্ষম হবেন।

    ড. রশীদ হাইলামাযের অনুসন্ধিৎসু দৃষ্টিকোণ, সত্য উৎঘাটনে পৌণঃপুনিক গবেষণা এবং তার সহজ সরল প্রকাশভঙ্গি সারা বিশ্বের ইসলামী প্রকাশনায় বিরল।

    বইয়ের বিষয়বস্তু : এ বইটিতে ইসলামের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একজন ব্যক্তিত্বের পরিচয় তুলে ধরা হয়েছে। বিরুদ্ধবাদীদের মিথ্যা অপবাদ এবং অহেতুক সমালোচনার প্রেক্ষিতে রাসূল সা. এর অন্যান্য স্ত্রীদের তুলনায় উম্মুল মুমিনীন আয়েশা রা. কে আরও বেশী সঠিকভাবে জানা প্রয়োজন। এ বইটিতে ড. রশীদ মুহাম্মাদ হাইলামায, ইসলামের শিক্ষা বাস্তবায়নে আয়েশা রা. এর বিশাল ভূমিকা, বিশেষ করে মহিলাদের ব্যক্তিগত এবং দাম্পত্য জীবনে ইসলামী শিক্ষার প্রচার-প্রসারে এবং রাসূল সা. এর বাণীকে সঠিকভাবে সংরক্ষণে যে নিবেদিত ভূমিকা রেখেছেন তা পরিষ্কারভাবে বর্ণনা করেছেন। বইটিতে কুরআনের তাফসীর, হাদীসশাস্ত্র, ফিকহ ইত্যাদি ইসলামের সকল শাখায় তাঁর পারদর্শিতা বিভিন্ন ঘটনা ও উদাহরণের মাধ্যমে যেমন বর্ণনা করা হয়েছে, তেমনি বহুল আলোচিত বিষয়সমূহ যেমন তাঁর বিয়ের বয়স এবং আলী রা. এর ব্যাপারে তাঁর অবস্থান আলাদা বিষয়বস্তু হিসেবে আলোচনা করা হয়েছে।

    রিভিউ : বইটা যখন প্রথম হাতে পেলাম, প্রচ্ছদ দেখে আমি এতটাই উচ্ছ্বসিত হয়েছিলাম যে ভুলেই গিয়েছিলাম আমি আর বাচ্চাটি নই। অসম্ভব সুন্দর প্রচ্ছদ দেখে বিমোহিত হবে যে কেউ।

    ইসলামী বই সংগ্রহ এক রকম শখ। সচরাচর দেখা যায় কোন বইয়ের খুব সুন্দর প্রচ্ছদ দেখে কিনলাম, কিন্তু দু/তিন লাইন পড়ে আর পড়ার ইচ্ছা হয় না ভাষার অপরিপক্কতা দেখে।

    কোনটা আবার দেখা যায় প্রচ্ছদ যাচ্ছে-তাই কিন্তু বইটা একবার পড়তে বসে শেষ না করে উঠা দায়।

    ‘জীবন ও কর্ম: আয়েশা রা.’ বইটির প্রচ্ছদ যেমন আকর্ষণীয়, বইটি পড়তেও তেমনি অসাধারণ।

    আল্লাহর রাসূল (সা.) এর সাথে আয়েশা (রা.) প্রেম আমাকে মুগ্ধ করেছে ভীষণ।

    রাসূল সা. এর প্রতি আয়েশা রা. এর টান, শ্রদ্ধা, ভালবাসা এবং পবিত্র ঈর্ষা দেখে আমি অবাক হয়েছি।

    আয়েশা রা. এর ঘরটি ছিল খুবই ছোট। উচ্চতায় মাত্র ৬/৭ হাত। ছাদ ছিল খেজুর পাতার, বৃষ্টির পানি থেকে রক্ষার জন্য উপরে কম্বল দেয়া ছিল। দরজা ছিল কাঠের। তবু কোন অভিযোগ ছিল না স্বামীর প্রতি।

    আহা! অভাব অনটনের সেই জীবনেও কত মধুময়, ভালবাসাপূর্ণ দাম্পত্য ছিল তাঁদের।

    আয়েশা রা. রাসূলুল্লাহ সা. এর মাথার চুল নিজেই আঁচড়ে দিতেন, শরীরে সুগন্ধি লাগিয়ে দিতেন, রাসূলের কাপড় ধুয়ে দিতেন, শোওয়ার পূর্বে রাসূলের মিসওয়াক ও পানি ঠিক করে দিতেন, রাসূলের মিসওয়াক পরিষ্কার করে দিতেন। রাসূল সা. অন্য স্ত্রীদের ঘরে গেলে একাকি অস্থির হয়ে যেতেন!

    রাসূল (সা.) এবং আয়েশা রা. এর ভালবাসা এত প্রগাঢ় ছিল যে সাহাবিরা আয়েশা (রা.) কে ‘রাসূলের প্রিয়তমা’ বলে ডাকা শুরু করেছিলেন।

    যেদিন আয়েশা রা. ঘরে থাকার পালা আসত, সেদিন সাহাবিরা হাদিয়া-তোহফা পাঠাতে পছন্দ করতেন, কারন ঐদিন রাসূল (রা.) এর হাসিতে অন্যরকম আনন্দ অনুভব হত।

    সুবহানাল্লাহ!

    প্রিয়তমা স্ত্রী কে আনন্দ দিতে একদা আল্লাহর রাসূল (সা.) বললেন, এসো আমরা দৌঁড়াই, দেখি কে আগে যেতে পারে। আয়েশা রা. হালকা পাতলা গড়নের ছিলেন, তাই স্বাভাবিক ভাবেই তিনি জিতে গেলেন।

    কয়েকবছর পর আবারো একই প্রস্তাব দিলেন। ততদিনে আয়েশা রা. এর ওজন বেড়ে গিয়েছিল,এবং দৌঁড়ের গতিও কমে গিয়েছিল। এবার আল্লাহর রাসূল জিতে গেলেন এবং প্রিয়তমা স্ত্রীর দিকে হেসে বললেন, এ হচ্ছে ঐদিনের বদলা।

    আল্লাহর রাসূল সা. এর এই প্রিয়তমার অনেক কিছুই আমার অজানা ছিল। এই বইটি পড়ে আমি জানতে পেরেছি সংসার জীবনে আমার প্রিয় রাসূল সা. কত রোমান্টিক ছিলেন, স্ত্রীর প্রতি কত সহানুভূতিশীল ছিলেন।

    বইটি পড়ে জানতে পেরেছি আয়েশা রা. ব্যক্তিগত, সামাজিক জীবনে কতটা অমায়িক ছিলেন, জেনেছি হাদীসশাস্ত্রে কতটা পারদর্শী ছিলেন।

    আমি যতবার বইটি পড়তে নিয়ে বসি আমার মনেহয় আমি বইটিতে ডুবে গেছি, ঘটনা গুলো আমার চোখের সামনে ঘটছে। আয়েশা রা. এর সাথে আল্লাহর রাসূল সা. এর প্রেমময় মুহুর্তগুলো পড়ে আমি বিভোর হয়েছি, দুষ্টুমি গুলো পড়ে আমি হেসে উঠেছি, বিরহের সময়টাতে আনমনে কতবার চোখ ভিজে উঠেছে আমার!

    লেখক এত সুন্দর, সহজ-সরল, শৈল্পিক ভাষা ব্যবহার করছেন যা সহজেই হৃদয় ছোঁয়ে যায়।

    আমি বিশেষ করে আমার বোনদেরকে গুরুত্বের সাথে ‘জীবন ও কর্ম: আয়েশা রাযি.’ বইটি পড়ার অনুরোধ করব।

    যারা অবিবাহিত তাদের জন্য অত্যন্ত জরুরী বিয়ের পূর্বেই বইটি পড়ে নেয়া।

    ইন শা আল্লাহ এই বইটি পড়ে আমরা উপলব্ধি করতে পারব একজন আদর্শ স্বামী-স্ত্রীর দাম্পত্য কেমন হওয়া উচিৎ, বুঝতে পারব অভাব-অনটনে কিভাবে সবর করা উচিৎ, কিভাবে স্বামীর আনুগত্য করা উচিৎ, কিভাবে বিপদে-আপদে ধৈর্য ধারন করতে হবে।

    আত্মত্যাগের উপর ভিত্তি করে গভীর ভালবাসার বন্ধন গড়ে উঠেছিল তাঁদের,

    এ বন্ধন বর্তমান ও ভবিষ্যতের উপর নির্ভরশীল ছিল না, বরং তা আখিরাতের অনন্ত পথের দিকেই নিবন্ধ ছিল।

    এই বইটি পড়লে আমাদের মধ্যেও সেই চেতনাবোধ জাগ্রত হবে ইন শা আল্লাহ।

  2. admin

    [রিভিউ লেখক : Md Khurshed Alam ]

    সংক্ষেপে:
    ইসলামের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এক বক্তিত্ব হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর স্ত্রী উম্মুল মুমেনীন হযরত আয়েশা রাঃ এর জীবনী সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে।

    বিস্তারিত:
    রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের স্ত্রীদের মধ্যে হযরত আয়েশা রাঃ সুউচ্চ মর্যাদার অধিকারিনী ছিলেন। আল্লাহ তাআলা নবী সাঃ কে সময়োপযোগী সঙ্গী হিসেবে মক্কায় যেমন হযরতখাদিজা রাঃ কে দিয়েছিলেন, ঠিক তেমনি মদীনায় হযরতআয়েশা রাঃ কে দিয়েছিলেন। হিজরতের পর মদীনার জীবন থেকে ইন্তেকাল পর্যন্ত ইসলামের জন্য আয়েশা রাঃ এর অবদান ছিল অতুলনীয়। আল্লাহ তাআলা তাঁকে অসাধারণ মেধা দিয়েছিলেন। রাসূলের ইন্তেকালের পর প্রায় পঞ্চাশ বছর পর্যন্ত তিনি ছিলেন নবুয়তের ধারক ও বাহক। ধর্মীয় ব্যাপারে কোন ভূল হলে, তিনি ছিলেন সম্মানিত সংশোধক। তিনি ছিলেন জ্ঞান দানকারী এবং ধৈর্য্যশীল। তিনি যা শুনতেন অন্ধভাবে বিশ্বাস করতেন না। সব কিছু কোরআন সুন্নাহ দিয়ে বিচার করতেন।হযরত আয়েশা রাঃ এর জন্যই কুরআনে তার বিরুদ্ধে অপবাদ রটনাকারীদের জন্য শাস্তি বর্ণিত হয়েছে। আয়েশা রাঃ এর জন্যই তায়াম্মুমের আয়াত নাযিল হয়েছে।
    এ রকম বহুগুণাবলী ও মর্যাদার অধিকারিনী ছিলেন হযরত আয়েশা রাঃ। যা বর্তমানে আমাদের বিশেষ করে মা বোনদের জন্য অনুকরণীয়। এজন্য দরকার তাঁর জীবনী ভালভাবে আত্মস্থ করা। হযরত আয়েশা রাঃ এর জীবনী নিয়ে একটি বই হচ্ছে ” জীবন ও কর্ম : আয়েশা রাযিয়াল্লাহু আনহা রাসূল সাঃ এর স্ত্রী, সঙ্গিনী, ফকীহ”।
    যা মূল লেখক হচ্ছেন তুরষ্কের একজন ইসলামী গবেষক এবং সীরাত লেখক ড. রশীদ হাইলামায। এর বাংলা অনুবাদ করেছেন মুহাম্মাদ আদম আলী।
    ৩৭২ পৃষ্টার বইটি ৫টি অধ্যায়ে বিভক্ত।
    প্রতিটি অধ্যায়ে যা আলোচিত হয়েছে-
    ১ম অধ্যায়- মক্কার জীবন এবং হিজরত। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য বিষয়গুলো হচ্ছে( বিবাহ বাগদান, মক্কার স্মৃতি, বিয়ের প্রস্তাব, প্রথম প্রস্তাব, দ্বিতীয় প্রস্তাব, উম্মে রুমানের প্রতি উপদেশ, পবিত্র হিজরত, হিজরতের প্রথম বছর, মদীনার সংক্রামক ব্যাধি)।
    ২য় অধ্যায়ে- সুখ- শান্তির বাড়ি। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য বিষয়গুলো হচ্ছে ( বিয়ে, আবু বকর রাঃ এর আচরণ, আয়েশা রাঃ এর ঘরের বাস্তব অবস্থা, কঠোর সাধনা, মহিলা প্রতিনিধি, রাসূল সাঃ প্রতি তাঁর ভালবাসা, রাসূলুল্াহ সাঃ এর ভালবাসা, আয়েশা রাঃ এর প্রতি রাসূলুল্লাহ সাঃ এর ভালবাসার প্রকৃত কারণ, দাম্পত্য জীবন, আনন্দ উৎসব, প্রতিযোগিতা, সূক্ষদর্শিতা, ইবাদত- বন্দগী, সংযম ও বিনয়, পর্দার ব্যাপারে সতর্কতা, ইসলামের বাণী বাহক ও পথপ্রদর্শক, সমরক্ষেত্রে আয়েশা রাঃ এর ভূমিকা, তায়াম্মুমের আয়াত নাযিলের ঘটনা)।
    ৩য় অধ্যায়- আয়েশা রাঃ এর নিষ্কলুক চরিত্র। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য বিষয়গুলো হচ্ছে ( অপবাদের ঘটনা, আয়েশা রাঃ এর অসুস্থতা, সাহাবীদের প্রতিক্রিয়া ও বিশ্বাস, সতীনদের সাথে সম্পর্ক, খাদীজা রাঃ, রাসূল সাঃ এর অন্যান্য স্ত্রীদের সাথে সম্পর্ক, আয়েশা রাঃ এর মর্যাদা, তাহরিমের ঘটনা, আয়েশা রাঃ ও ফাতেমা রাঃ, রাসূল সাঃ এর অন্তিম মূহূর্তে আয়েশা রাঃ এর ভূমিকা)
    ৪র্থ অধ্যায় – রাসূল সাঃ এর ইন্তেকালের পর। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য বিষয়গুলো হচ্ছে ( খুলাফায়ে রাশেদীনের যুগ এবং মুয়াবিয়া রাঃ, আবু বকর রাঃ এর খেলাফত, উমর রাঃ এর খেলাফত, উসমান রাঃ এর খেলাফত, আলী রাঃ এর খেলাফতকাল, উটের যুদ্ধ : মুসলমানদের মধ্যে পরস্পরেরর বিরুদ্ধে পরীক্ষা, মুয়াবিয়া রাঃ এর খেলাফতকাল)
    ৫ম অধ্যায়- আয়েশা রাঃ এর জ্ঞান ও প্রজ্ঞা। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য বিষয়গুলো হচ্ছে ( সবার জন্য জ্ঞানের উৎস, আয়েশা রাঃ এর শিক্ষাদান পদ্ধতি, কুরআনের তাফসীর, হাদীস, ইলমে ফিকহ, ইলমে কিয়াস, সাহিত্য, বক্তৃতা ও কাব্যপ্রীতি, চিকিৎসা বিজ্ঞান, শিষ্যবৃন্দ, উরওয়া ইবনে যুবায়ের, কাসিম ইবনে মুহাম্মাদ, উমরা বিনতে আব্দুর রহমান, মুয়াযা আল- আদাবিয়্যা, আয়েশা রাঃ এর বিয়ের সময় বয়স কত ছিল, আলী রাঃ এবং আয়েশা রাঃ)।

    বইটিতে আলহামদুলিল্লাহ হযরত আয়েশা রাঃ জীবনীকে ৫টি অধ্যায়ে সুন্দর করে ধারাবাহিক ভাবে তুলে ধরা হয়েছে। বইটিতে কুরআনের তাফসীর, হাদীসশাস্ত্র, ফিকহ ইত্যাদি ইসলামের সকল শাখায় আয়েশা রাঃ এর পারদর্শিতা বিভিন্ন ঘটনাও উদাহারনের মাধ্যমে যেমন বর্ণণা করা হয়েছে, তেমনি বহুল আলোচিত বিষয়সমূহ যেমন- তাঁর বিয়ের বয়স, আলী রাঃ এর ব্যাপারে অবস্থান এগুলো আলাদা অধ্যয়ে আলোচনা করা হয়েছে। প্রতিটি উল্লখযোগ্য ঘটনাবলি হাদীসের আলোকে আলোচনা করা হয়েছে এবং পৃষ্টার নিচের অংশে হাদীস নং দেওয়া আছে যা বিভিন্ন বক্তব্যকে আরও বিশ্বাস যোগ্য করে তুলেছে। এর বাহ্যিক দিকও মাশাআল্লাহ আকর্ষণীয়।
    বর্তমান সমাজের মা বোনদের চারিত্রিক উন্নয়নের জন্য আয়েশা রাঃ এর জীবনী জেনে নিজেদের জীবনে বাস্তবায়ন করা অত্যন্ত জরুরি। এক্ষেত্রে এ বইটি উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে ইনশাআল্লাহ।

Add a review

Your email address will not be published. Required fields are marked *