প্রফেসর মুহাম্মাদ হামীদুর রহমান

 

প্রফেসর হযরত ৯ জানুয়ারী ১৯৩৮ সালে মুন্সিগঞ্জের নয়াগাঁও গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। শৈশব থেকেই তার শ্রদ্ধেয় পিতা মরহুম ইয়াসিন সাহেব তাকে মসজিদের ইমাম, মুয়াজ্জিন, মক্তবের  উস্তাদসহ অন্যান্য দ্বীনী কর্মে সংযুক্ত ব্যক্তিদের খেদমতে নিয়োজিত করেন। তিনি ইসলামিয়া হাই ‎‎স্কুল থেকে ১৯৫৫ সালে মেট্রিক এবং ঢাকা কলেজ থেকে ১৯৫৭ সালে ইন্টারমিডিয়েট কৃতিত্বের সঙ্গে পাশ করেন। পরে বুয়েট থেকে ১৯৬১ সালে ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করার পর সিদ্ধিরগঞ্জ পাওয়ার ‎‎স্টেশন ও ইংলিশ ইলেট্রিক কো¤পানিতে চাকুরী এবং বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় ও ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজিতে ‎‎দীর্ঘসময় শিক্ষকতা করেন।

শিক্ষকতার পাশাপাশি তিনি অনেক আল্লাহওয়ালার সোহবতে থাকার সৌভাগ্য লাভ করেন। এক পর্যায়ে ১৯৭৪ সালে তিনি হযরত হাফেজ্জী হুযুর রহ.-এর নিকট বাইআত হন। তারপর থেকেই তার জীবন, ইলম-আমল ও আখলাকে আমূল পরিবর্তন সূচিত হয়। হাফেজ্জী হুযুর রহ.-এর খাদেম হিসেবে পবিত্র হজের সফর ছাড়াও বিভিন্ন দেশে সফর করার সৌভাগ্য অর্জন করেন। হযরত হাফেজ্জী হুযুর রহ.-এর ইন্তেকালের পর হাকীমুল উম্মত হযরত মাওলানা আশরাফ আলী থানভী রহ.-এর সর্বশেষ খলীফা হযরত মাওলানা শাহ আবরারুল হক সাহেব রহ.-এর সাথে সম্পর্কিত হন। ইসলামী জ্ঞানে এত পারদর্শী এবং প্রজ্ঞাবান হয়েও নিজের সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আমি নিজে আলেম নই। উলামায়ে কেরামের জুতা বহন করতে পারাটাও আমি নিজের জন্য সৌভাগ্যের ব্যাপার মনে করি।